বীরেন্দ্র সেহবাগের ৮টি রেকর্ড,যেগুলি ভাঙা প্রায় অসম্ভব!

0
948
Image-Google

বীরেন্দ্র সহবাগ এর ৮ টি অবিশ্বাস্য রেকর্ড যা এখনও অক্ষত, ভাঙ্গা প্রায় অসম্ভব

দা টাইমস অফ কলকাতা স্পোর্টস ডেস্ক (রোহান) – ভারতীয় ক্রিকেটে বিধ্বংসী ওপেনিং ব্যাটসম্যানদের মধ্যে বীরেন্দ্র সহবাগ অন্যতম। এমনকি টেস্ট ক্রিকেটেও তিনি বিধ্বংসী ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিত। এক সময় ক্রিকেটবিশ্ব সাক্ষী থেকেছে তার ব্যাট থেকে বার হওয়া বিধ্বংসী এক একটি ইনিংসের।তার ব্যাটিং তান্ডবে একসময় বিশ্বের তাবড় তাবড় বোলারদের রাতের ঘুম নষ্ট হয়ে যেত।
১৯৯৯ সালে এই ডানহাতি বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান টির আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একদিনের ম্যাচে আত্মপ্রকাশ ঘটে। টেস্ট ক্রিকেটে তিনি ২০০১ সালে অভিষেক করেন। এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ২০০৬ সালে তিনি ভারতীয় দলে জায়গা করে নেন।

তার দীর্ঘ ক্যারিয়ারে একের পর এক দুর্দান্ত ইনিংস খেলে তিনি এমন কয়েকটি রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন যা ভাঙ্গা প্রায় অসম্ভব এবং যা আজও অক্ষত অবস্থায় রয়েছে। ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে তিনি নজফগড়ের নবাব হিসেবে পরিচিত।
তার বহু রেকর্ডের মধ্যে এমন ৮ টি রেকর্ড আছে যা ভাঙ্গা প্রায় অসম্ভব যেগুলি আজও তার নামের পাশে জ্বলজ্বল করে।

চলুন এক নজরে দেখে নিই সহবাগ এর সেই ৮ টি রেকর্ড :

১. বীরেন্দ্র সহবাগ তার টেস্ট ক্যারিয়ারে মোট ২৩ টি সেঞ্চুরি করেছেন। যার মধ্যে ৭ টি সেঞ্চুরি করেছেন ১০০ এর বেশি স্ট্রাইক রেট নিয়ে। এ রেকর্ডটি আজও বিশ্ব ক্রিকেটে কোন ব্যাটসম্যানের পক্ষে ভাঙ্গা সম্ভব হয়নি।

২. একদিনের ম্যাচে প্রথম ওভারেই ১৫ বার ছক্কা মারার এক অবিশ্বাস্য রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন। এমনকি তিনি ক্রিকেটের প্রত্যেক ফরম্যাটেই প্রথম বলে ছক্কা মারার অনন্য নজির গড়েছেন। এক দুবার নয় তিনি এ কীর্তি করেছেন ১০ বার। তারমধ্যে সাতবার একদিনের ম্যাচে ও দুবার টেস্ট ক্রিকেটে।

৩. আন্তর্জাতিক একদিনের ম্যাচে ওভারের প্রথম বলেই ২০ বার বাউন্ডারি মারার এক অনন্য নজির তিনি সৃষ্টি করেন। যা ক্রিকেট ইতিহাসের এক অবিশ্বাস্য রেকর্ড হিসেবে ধরা হয়

৪. টেস্ট ক্রিকেটে একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি ৯০,১৯০ ও ২৯০ রানের ঘরে আউট হন। তারমধ্যে ৯০ রানের ঘরে তিনি ৯০,৯০,৯২,৯৬ ও ৯৯ রানে আউট হন।১৯০ রানের ঘরে ১৯৫ এবং ২৯০ রানের ঘরে ২৯৩ রানে আউট হন।

৫. তিনি ১০ টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ১০০ এর কম বলে।

৬. ২০০৮ সালে টেস্ট ক্রিকেটে চেন্নাইয়ের এম. এ চিদাম্বারাম স্টেডিয়ামে সাউথ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩১৯ রানের এক অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলে রেকর্ড সৃষ্টি করেন। মাত্র ২৭৮ বলে তিনি ৩০০ রানে পৌঁছে যান। সেই সাথে সবচেয়ে দ্রুততম ৩০০ রানের রেকর্ড নিজের পকেটে পুরে নেন।

৭. বিশ্ব ক্রিকেটে দুবার তিনি ৩০০ রানের গণ্ডি পার করেছেন। বিশ্বের মাত্র ৪ জন ক্রিকেটার এই রেকর্ড করে তার সাথে এক সারিতে আছেন। সাউথ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩১৯ এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ৩০৯।

৮. ২০০৯ সালে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে অনুষ্ঠিত একদিনের ক্রিকেট ম্যাচে সহবাগ মাত্র ৬০ বলে শতরান পূর্ণ করেন। তার সেই বিধ্বংসী ইনিংস আজও ক্রিকেটপ্রেমীদের মুখে আলোচিত হয়।
২০০৪ সালে টেস্ট ক্রিকেটে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তিনি এক অবিশ্বাস্য ট্রিপল সেঞ্চুরিসহ ৩০৯ রান করেন। ওই ইনিংসে তিনি ছক্কা মেরে ট্রিপল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন।১৩০ বছরের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে যা আর কোন ব্যাটসম্যান করতে পারেননি।২৯৫ রানে ব্যাট করার সময় তিনি পাকিস্তানি বোলার সাকলাইন মুশতাক কে ছক্কা মেরে নিজের ত্রি শতরান পূর্ণ করেন।
একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটি তার পকেটে ছিল।১৪৯ বলে ২১৯ রান, যা পরবর্তীকালে আরেক ভারতীয় ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা ভেঙে দেন ১৭৩ বলে ২৬৪ রান করে।

২০০৫ সালে তিনি ভারতীয় ক্রিকেটে সহ-অধিনায়কের পদ লাভ করেছিলেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তিনি ২০১৫ সালের ২০ ই অক্টোবর অবসর ঘোষণা করেন এবং নিজের ব্যাট তুলে রাখেন।
তাকে সম্মান জানানোর জন্য ২০১৭ সালের ৩১ ই অক্টোবর দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামের ২ নম্বর গেটের নাম রাখা হয় ‘বীরেন্দ্র সহবাগ গেট ‘। বর্তমানে ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামটি অরুণ জেটলি স্টেডিয়াম নামে পরিচিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here