বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লা খনি হবে বাংলায়, ১০০ বছর বিদ্যুতের অভাব হবে না! ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর…

0
53
West Bengal COal Mine

রাজ্যে শিল্পের বিকাশের দিকে এইবার নজর দিয়েছেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পানাগর শিল্পতালুকের একটি পলিথিন কারখানার শিলান্যাস করতে গিয়ে তিনি সেই কথাই বলেন। এই অনুষ্ঠানে থেকে এইদিন রাজ্যের একাধিক প্রকল্পের শিলান্যাস ও উদ্বোধন করেন মাননীয়া এবং পাশাপাশি রাজ্যে একাধিক শিল্পের সম্ভাবনার কথাও তিনি বলেন।

রাজের একাধিক শিল্প তালুকের কথা বলতে বলতেই তিনি সরকারের পরবর্তী লক্ষ্যের কথা বলেন। তখনই তিনি বীরভূমের দেউচা পাঁচামি কয়লা খনির কাজ শুরু করার কথা বলেন। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায়,“ দেউচা পাঁচামি এখান থেকে এক ঘন্টার রাস্তা। দুনিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লা খনি এখানেই তৈরি হবে। 15 হাজার কোটি বিনিয়োগ হবে এখানে।

এটি তৈরি হয়ে গেলে আগামী 100 বছরে রাজ্যে বিদ্যুতের অভাব হবে না। এতে শিল্পের সুবিধা হবে, ওই খনি তৈরীর জন্য রিহ্যাবিটিটেশন এর কাজ আগামী দুই থেকে তিন মাসের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে।” এর পাশাপাশি মাননীয়া এদিন আরো বলেন যে, “ দ্বিতীয় পর্যায়ে জমিদাতাদের চাকরি হবে, ঘর হবে, সবকিছুই হবে জমিদাতাদের।”

 

রাজ্য শিল্পের বিষয়ে বলতে গিয়ে মাননীয়া বলেন,আমরা দুটি নতুন পলিসি ঘোষণা করছি রাজ্যে শিল্পের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য। একটি হলো ইথানল প্রোডাকশন পলিসি ও অপরটি হলো ডেটা সেন্টার পলিসি। এটা সেন্টারগুলোর জন্য রাজ্য সরকার সব ধরনের সাহায্য করবে কুড়ি হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগে চার হাজার কর্মসংস্থান হবে।

এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী এইদিন আরো বলেন যে, কাজী নজরুল ইসলাম বিমান বন্দরকে আগামী দুইবছরে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হিসেবে তৈরি করা হবে এবং বালুরঘাট ও কোচবিহার বিমানবন্দর তৈরি করার পাশাপাশি ত্রিশটি হেলিকপ্টার স্টেশন‌‌ তৈরি করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here